লেনদেন

পোস্ট অফিসে প্রতি মাসে 100 টাকা রেখে পেতে পারেন ৭ লাখ টাকা

Post office savings account

আপনি যে পেশার মানুষ হন না কেন, পোস্ট অফিসের এই নতুন স্কিমে আপনি অল্প কিছু টাকা জমিয়ে অনেক বড় মাপের অ্যামাউন্ট পেতে পারেন। প্রতিমাসে 100 টাকা জমা করে 5 বছর পর 6 লক্ষেরও বেশি টাকা পেতে পারেন । এখানে টাকা রাখার  নির্দিষ্ট কোনো ব্যাপার নেই, আপনি যত খুশি থাকা এখানে জমা করতে পারেন। ম্যাচিউরিটির সময় আপনা আপনি  বড় এমাউন্টের টাকা আপনার একাউন্টে ঢুকে যাবে।

Money deposit

আপনি যদি অন্যান্য ব্যাংকের সাথে তুলনা করেন ,সবথেকে বেশি সুদ সহকারে টাকা ফেরত দিতে পারে একমাত্র পোস্ট অফিস। এখন পোস্ট অফিসে সুদের হার ৫.৮%। ভারত সরকারের স্কিমে ১৫ বছরের জন্য বছরে ১৫ হাজার টাকা করে যদি জমা রাখতে পারেন ম্যাচুরিটি অ্যামাউন্ট ১ কোটি ৮৬ লক্ষ ৬২ হাজার টাকা পেতে পারেন। মানে আপনার ইনভেস্টমেন্টের দ্বিগুণ টাকা ফেরত পেতে পারেন। এই স্কিম সদ্য শিশুদের কথা মাথায় রেখে করা হয়েছে, তাদের ভবিষ্যতে যাতে কোনো অসুবিধার মুখে পড়তে না হয় সেটা ভেবে।

আরও পরুনঃ ভারতের মুদ্রাস্ফীতির কারণ কী কী?

@newswap01

 পোস্ট অফিসের টাকা রাখা সবচাইতে সিকিওর। এখানে কোন  রিস্ক থাকেনা। কিন্তু অন্যান্য ব্যাংকের ক্ষেত্রে এর সম্ভাবনা থাকে । ব্যাংক কোন কারনে দেওলিয়া হয়ে গেলে আপনার অ্যামাউন্টের পুরো টাকা ফেরত নাও দিতে পারে। সর্বোচ্চ ক্ষতিপূরণ দিতে পারে দুই থেকে তিন লক্ষ টাকা। পোস্ট অফিসে টাকা রাখার ক্ষেত্রে এই রকম কোনো ঝুঁকি সম্ভাবনা থাকেনা।

অনেক মানুষই পোস্ট অফিসের বিভিন্ন স্কিম সম্পর্কে জানেন না বলে উপকারিতা নিতে পারে না। চলুন দেখে নেই 2022 এর এই চমৎকার কিছু স্কিম।

কিভাবে পোস্ট অফিসে একাউন্ট খুলবেন?

এই স্কিমটি ভারতের মধ্যে অবস্থিত সমস্ত পোস্ট অফিসে পেয়ে যাবেন। 10 বছরের শিশু থেকে শুরু করে প্রত্যেকেই এই অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে। আবার অনেকে তিনজনে একসঙ্গে একাউন্ট ওপেন করতে পারবেন ( joinn A+join B ), সিঙ্গেল ও একাউন্ট ওপেন করতে পারবেন।

আরও পরুনঃ স্টক মার্কেট ক্র্যাশ হওয়ার কারণ কি?

কত টাকা ডিপোজিট করতে পারবেন?

এই অ্যাকাউন্ট ওপেন করার পর আপনি মিনিমাম 100 টাকা থেকে ডিপোজিট করতে পারবেন। টাকা জমা করার ক্ষেত্রে কোন লিমিট নেই।আমি যত খুশি টাকা এখানে ডিপোজিট করতে পারবেন।

একাউন্ট ওপেন করতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন হয়?

অ্যাকাউন্ট ওপেন করার জন্য সবার প্রথমে যেটা দরকার, আপনার নামে পোস্ট অফিসে একটা সেভিংস একাউন্ট। সেভিংস একাউন্ট থেকে ডাইরেক্ট আপনার আরডি একাউন্টে অটো ডেবিট হয়ে যায়। আপনার কাছে যদি সেভিংস একাউন্ট ওপেন করা না থাকে, তবে প্যান কার্ড, আধার কার্ড, পাসপোর্ট সাইজ ফটো,৫০০ থেকে ১০০০ টাকা দিয়ে আপনি একাউন্ট ওপেন করতে পারবেন।

আরও পরুনঃ UPI payment ফিচার ফোনের মাধ্যমে কীভাবে করবেন?

টাকা জমা করার নিয়মাবলী

টাকা জমা করার ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম রয়েছে চটপট দেখে নিই নিয়ম গুলি_

মাসের প্রথম সপ্তাহে অ্যাকাউন্ট ওপেন করলে মানে ১ থেকে ১৫ তারিখের মধ্যে, আপনাকে টাকা ওই তারিখের মধ্যেই ডিপোজিট করতে হবে। আবার আপনি যদি ১৫ থেকে ৩০ তারিখের মধ্যে একাউন্ট ওপেন করেন, ওই তারিখের মধ্যেই আপনাকে টাকা জমা করতে হবে। টাকা জমা করার সময় পেরিয়ে গেলে আপনাকে ফাইন ভরতে হবে। ১০০ টাকা একাউন্টে আপনার ফাইন কাটা হবে ১ টাকা।

বিশেষ দ্রষ্টব্য:

এখানে আপনি একবছরের টাকা একসঙ্গে ডিপোজিট করার সুবিধা পাবেন। একসঙ্গে ডিপোজিট করার ক্ষেত্রে আপনি কিছু টাকার ডিসকাউন্টে পেতে পারেন।

জরুরী সময়ে কিভাবে আপনি টাকা তুলতে পারবেন?

আপনি লোনের মাধ্যমে টাকা তুলতে পারবেন। ১২মাসের ইনস্টলমেন্ট এর পরে, আপনার এমাউন্টের উপর ৫০% লোন নিতে পারবেন। ফ্রি ম্যাচিওরিটি হওয়ার তিন বছর পর আপনি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে পুরো টাকা তুলে নিতে পারবেন।

অন্যথা পাঁচ বছর হবার পরে প্রায় সাত লাখের কাছাকাছি টাকা আপনি পেতে পারেন।ডাইরেক্ট আপনার সেভিংস একাউন্টে এই বড় মাপের অ্যামাউন্ট ঢুকে যাবে।

তবে আপনি যদি কোনো কারণে এই স্কিমে টাকা দেওয়া বন্ধ করে দেন, অ্যাকাউন্টটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার চান্স থাকবে, পরের মাসে আপনি ওই অ্যাকাউন্ট আবার চালু করতে পারবেন কিন্তু আপনার জমানো টাকা ফেরত নাও পেতে পারেন। এই স্কিম যতটা কার্যকারী তেমনি এর নিয়ম না মানলে আপনার জমানো টাকা পুরোটাই হারাতে পারেন।

নতুন খবর এবং টেকনিকাল খেলাধুলা জ্ঞান মূলক তথ্য জানতে হলে আমাদের নোটিফিকেশন বেলটি Allow করতে ভুলবেন না এবং আমাদের সাথে জুড়ে থাকবেন।

Related Articles

Back to top button