নদীর জলের সঙ্গেই ভেসে আসে লক্ষ টাকার সোনা, কিন্তু কোন নদী?

ভারতের মধ্যেই এমন একটি নদী রয়েছে যে নদীর জলের সঙ্গে ভেসে আসে সোনা, এই নদীর আশেপাশের স্থানীয় মানুষদের জীবিকা চলে সোনার সংগ্রহের উপর।

সুবর্ণরেখা নদী

সুবর্ণরেখা” এই সঙ্গেই সোনার সম্পর্ক রয়েছে। সুবর্ণ অর্থাৎ সোনা। ঝাড়খণ্ডের তামোর ও সারান্দাতে কয়েক শতাব্দী ধরে সোনার সংগ্রহ করে নিজেদের রোজকার চালিয়ে যাচ্ছে।

 সুবর্ণরেখা নদীর উৎসঃ

সুবর্ণরেখা নদীর উৎপত্তিস্থল ঝড়খণ্ডের রাঁচি থেকে 16 কিলোমিটার দূরে। ঝাড়খন্ড থেকে শুরু হয়ে প্রথমে পশ্চিমবঙ্গ পরে উড়িষ্যার মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হয়ে বঙ্গোপসাগরে মিশেছে।

বিজ্ঞানীরা অনেক চেষ্টা করেও এখনো পর্যন্ত জেনে উঠতে পারেননি সুবর্ণরেখা নদীতে কেন সোনা পাওয়া যায়। তবে বিজ্ঞানীদের ধারণা এই নদীর বেশিরভাগ অংশ পাথরের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হয় তাই সোনা আসা সম্ভাবনা বেশি থাকে। তবে নিশ্চিত করে কিছুই বলেননি তারা।

সুবর্ণরেখা থেকে সোনা উত্তোলন করতে সারাদিন পরিশ্রম করতে হয় সাধারণ মানুষদের। সোনা পাওয়া গেলেও পরিমাণ সামান্য। তাই সাধারণ অধিবাসীদের পরিমাণ খুবই কম মাসিক আয় সাত থেকে আট হাজার টাকা। সারা মাসে তারা হয়তো ৮ থেকে ৯ টি সোনার কণা সংগ্রহ করতে পারে এবং সেগুলিকে ১০০ থেকে ৮০ টাকায় বিক্রি করে। সোনা যেমন এই নদীতে পাওয়া যায় কিন্তু উত্তোলন করা খুবই কঠিন।

নতুন খবর এবং টেকনিকাল খেলাধুলা জ্ঞান মূলক তথ্য জানতে হলে আমাদের নোটিফিকেশন বেলটি Allow করতে ভুলবেন না এবং আমাদের সাথে জুড়ে থাকবেন

Leave a Comment