লেনদেন

ফোন চুরি হয়ে গেছে! কিভাবে আপনার ফোনের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও UPI কে ডিএক্টিভেট করবেন?

বর্তমান সময়ে ভারতের মানুষ একই সাথে ডিজিটাল হওয়ার চেষ্টা করছে, সেই সময় নেই যখন মানুষ নগদ টাকা ব্যাগের ভিতর বা হাতে করে পকেটে করে নিয়ে চলাফেরা করতো। যুগ বলেছে সাথে মানুষও বদলাচ্ছে যত সহজে মানুষ কোন কিছু সারতে পারবে ততই মানুষের কাছে সেটি উপকার। আপনার কাছে খুব প্রয়োজনীয় কিছু ক্যাশ টাকা রাখলে এবং ফোন যার মধ্যে ইউপিআই ও ব্যাংক একাউন্ট থাকছে।

ফলে আপনাকে কখনোই কোন বিপদে পড়তে হবে না যে কোন জায়গাতেই পেমেন্ট করতে পারবেন যেকোনো পরিস্থিতিতে। যেকোনো সময় আপনি যে কোন বিল পেমেন্ট থেকে শুরু করে ফোন রিচার্জ শপিং সবকিছুই পেমেন্ট করতে পারবেন আপনার এই হাতে থাকা মোবাইল টির মাধ্যমে। কিন্তু প্রত্যেকটা জিনিসই যত উপকার দিকগুলো রয়েছে তার সাথে কিছু অপকারিতা রয়েছে। বিপত্তি তখনই হয় যখন আপনার ফোন অন্য কারোর হাতে চলে যায় অথবা ফোনটি চুরি হয়ে যায়। ফোন চুরি হয়ে গেছে! কিভাবে আপনার ফোনের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও UPI কে ডিএক্টিভেট করবেন?সে তো সবাই জানে। আপনার ফোন চুরি হয়ে যাওয়া সত্ত্বেও আপনি আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও অনলাইন পেমেন্ট মেথড গুলি ডিএক্টিভেট করতে পারবেন কিন্তু কিভাবে? জানতে হলে আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়তে হবে মনোযোগ সহকারে। 

UPI payment

আরও পড়ুন: ভারতীয় সমাজে কি এখনও ডাইনি এর অস্তিত্ত রয়েছে?

আরও পড়ুন: BSNL ইউজারদের জন্য দারুন অফার !! Bharat Fiber নিলে পাবেন 1200 টাকা বিনামূল্যে

@newswap01

কিভাবে আপনার ফোন চুরি হওয়া সত্ত্বেও আপনার ফোনের সমস্ত পেমেন্ট মেথড গুলি ডিএক্টিভেট করবেন? 

আপনার ফোন চুরি হয়ে গেলে সর্বপ্রথমে যে কোম্পানি যে অপারেটরের সিম আপনি ব্যবহার করছেন তার কাস্টমার কেয়ারে ফোন করবেন এবং তাদেরকে অনুরোধ করবেন আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোনের সিমটিকে ডিএক্টিভেট করানোর জন্য তার জন্য কিছু কোশ্চেন বা আপনাকে অন্য জায়গায়ও যেতে হতে পারে নিকটবর্তী সার্ভিস সেন্টার। যার ফলে হারিয়ে যাওয়া ফোনের সিমকে ব্যবহার করে চোর নতুন করে UPI পিন ক্রিয়েট করতে পারবে না। 

পরবর্তী স্টেপে আপনাকে হারিয়ে যাওয়া ফোনের মধ্যে যে সমস্ত ব্যাংক গুলি একটিভ করা ছিল, সেই ব্যাঙ্কের সার্ভিস সেন্টার এ ফোন করবেন এবং সেখান থেকে হারিয়ে যাওয়া ফোনের ইউপিআই ও ব্যাংক ফেসিলিটিস বন্ধ করতে বলবেন। 

এই দুটি সাধারণ স্টেপের মাধ্যমে আপনি আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোনের ক্ষোভ কিছুটা হলেও মেরামত করতে পারবেন। আপনি পরে আপনার আধার কার্ডের মাধ্যমে হারিয়ে যাওয়া ফোনে যে সিমটি ছিল সেই নম্বরেই আরেকটি সিম বার করতে পারবেন নিকটবর্তী নেটওয়ার্ক সার্ভিস সেন্টার থেকে। আশা করি আমাদের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনি উপকৃত হবেন। 

নতুন খবর এবং টেকনিকাল খেলাধুলা জ্ঞান মূলক তথ্য জানতে হলে আমাদের নোটিফিকেশন বেলটি Allow করতে ভুলবেন না এবং আমাদের সাথে জুড়ে থাকবেন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button