Uncategorized

ভারতের মুদ্রাস্ফীতির কারণ কী কী?

আমরা বেশ কিছুদিন ধরেই দেখতে পারছি ভারতের টাকার মান কমে যাওয়ার কারণে বিভিন্ন ঘটনা ঘটছে, এই মুদ্রাস্ফীতি নিয়ে আমাদের প্রত্যেকের মনেই কিছু না কিছু প্রশ্ন রয়েছে ।  এই মুদ্রাস্ফীতির ফলে আমাদের জীবনধারায় কি কি প্রভাব পড়বে..সেটা নিয়েই আজ এই আর্টিকেলে আলোচনা করব__

আমরা আগেই শুনেছি এই মুদ্রাস্ফীতির ফলে বিভিন্ন দেশে যেমন ভেনেজুয়েলার মুদ্রাস্ফীতির ফলে কিভাবে কাঙ্গাল হয়ে গেছে, টার্কির মুদ্রার মান কিভাবে কমে গেছে, পাকিস্তান কিভাবে ভুগছে সেটাও আমরা দেখেছি।

inflation of Indian money

কিন্তু এই ব্যাপারগুলি সঙ্গে ভারতের মুদ্রাস্ফীতির তুলনা হয় না এগুলো সম্পূর্ণই আলাদা এবং ভারতের মুদ্রার মান কমে যাওয়ার বিষয়টি পুরো ভিন্ন। এগুলোই পুরোটাই নির্ভর করে মার্কেটের উপর। এখানে আমাদের ভারত সরকারের হাতে নেই কিংবা আরবিআই ওখানে কিছু করতে পারবে না।

ভারতের মুদ্রাস্ফীতি এর যে কারণ রয়েছে সে গুলি আলোচনা করব:

মুদ্রার মান পড়ে যাওয়ার ফলে আমাদের জনজীবনের উপর অনেকখানি প্রভাব ফেলে  এবং কেন এগুলি ঘটে চলুন কারণ গুলি আলোচনা করা যাক

@newswap01

REPO Rate: 

রিপো রেট হল  যখন  আমরা ব্যাংক থেকে লোন নেই তখন আমাদেরকে ব্যাংকের সুদ দিতে হয়।  ব্যাংক কখনো নিজের কাছে টাকা রাখে না। ব্যাংক লোন নেয় আর RBI- এর কাছ থেকে ,ব্যাংকের সুদের হার নির্ভর করে RBI এর উপর। এই সুদ, এটিকেই Repo rate বলা হয়। সুদের হার বেশি হলে আমরা কোন জিনিস কেনার সময় লোন নেওয়ার পরিবর্তে আমরা নগদ দামে সেটিকে কেনার চেষ্টা করব। মানুষ যখন সহজেই পেয়ে যাবে তখন তারা প্রোডাক্টটি দাম বেশি হলেও সহজেই কিনতে পারবে,  যার জন্য জিনিস এর চাহিদা বাড়বে,  এরফলে প্রোডাক্টের স্বাভাবিক মূল্যের থেকে অনেকটাই দাম বেড়ে যাবে।

সুদের হার বেশি থাকলে মানুষ লোন নেওয়ার সাহস করবেনা। প্রোডাক্ট এর দাম কমতে থাকবে এই যে রিসাইকেল সিস্টেম নিয়ন্ত্রণ করে পুরোটাই RBI( Reserve Bank of India )

কাঁচা তেলের দাম বৃদ্ধি

ভারতের মুদ্রাস্ফীতির একটা বড় কারণ হল কাঁচা তেলের দাম বৃদ্ধি। ভারত আমাদের প্রয়োজনে প্রায় 83% তেল বাইরের দেশ থেকে আমদানি করে। কাঁচা তেলের দাম নির্ধারণ করা হয় ডলারের স্বপক্ষে , এক বছরে অপরিশোধিত তেলের দাম 46.49% প্রায় বেড়ে গেছে। তাই ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় অনেক অংশই খনিজ তেল ট্রেনের পিছনে বেরিয়ে যায়। তেলের দাম covid- 19 কারনে বৃদ্ধি  এর হয়েছে।

Related Post: স্টক মার্কেট ক্র্যাশ হওয়ার কারণ কি?-Stock Market

ভারতীয় মুদ্রার পরিবর্তে ডলার ক্রয় 

ভারতীয় মুদ্রার মান কমে যাওয়ার একটি কারণ হলো ভারতীয় মুদ্রার পরিবর্তে অধিক পরিমাণে ডলার ক্রয় করা। প্রত্যেক দেশ চায়  বিদেশি মুদ্রার ভান্ডার কে মজবুত করতে। যখন এক ডলারের পরিবর্তে অনেক বেশি ভারতীয় রুপি পাওয়া যাবে তখন যে কেউ বিদেশি ডলার এক্সচেঞ্জ করতে চাইবে যার ফলে ভারতে ডলারের পরিমাণ আরো বাড়বে এবং বিদেশি মুদ্রার দিক থেকে আমাদের দেশ আরো শক্তিশালী হতে পারবে।

আমেরিকার নীতির পরিবর্তন

মুদ্রাস্ফীতির আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ হলো আমেরিকার নীতির পরিবর্তন। ট্রাম্পের আমল থেকেই আমেরিকার বিভিন্ন নিয়মের পরিবর্তন হয়েছে। আমেরিকার সেন্ট্রাল ব্যাংক এবং ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক ডলার ডিপোজিট রাখার বেশ অনেকটাই বেশি সুদ দিচ্ছে । এর ফলে ডলার একত্রে করা সম্ভব  হচ্ছে না । আমেরিকার কাছে যত পরিমাণ ডলার থাকবে তত বেশি শক্তিশালী হবে,  ফলে অন্যান্য দেশ  অর্থনৈতিক  দিক থেকে দুর্বল হয়ে পড়বে।

Covid-19 এর কারণে ইনভেস্টরদের ঘাবড়ে যাওয়া

করোনার ভেরিয়েন্ট ওমিক্রন চলাকালীন ডেল্টা ভাইরাসের নাম শোনা যাচ্ছিল। সেই সময়ে অনেক ইনভেস্টর রাই ইনভেস্ট করতে চাইনি। অমিক্রণ অডিটর প্যানিক এর কারণে প্রায় 4 মিলিয়ন ডলার শেয়ার মার্কেট থেকে তুলে নেওয়া হয়। এই রকম অনেক কারণ রয়েছে যেগুলো ভারতের মুদ্রাস্ফীতির উপর প্রভাব ফেলেছে।

আমাদের ভারতের কতগুলি রাজ্যের মুদ্রাস্ফীতি ঘটেছে তারমধ্যে সবার প্রথমে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ, এপ্রিল মাসের গ্রাফে দেখা গেছে পশ্চিমবঙ্গের মুদ্রাস্ফীতির হার 9.1%, মধ্যপ্রদেশ 9.1%, হরিয়ানা 9%, তেলেঙ্গানা 9%, মহারাষ্ট্র 8.8%, আসাম 8.5%, উত্তর প্রদেশ 8.5%, গুজরাট 8.2%, ওড়িশা 8.1%, জম্বু কাশ্মীর 8%, কেরল 5.1%, তামিলনাড়ু 5.4%. 

Read More: মেডিটেশন কি? মেডিটেশনের উপকারিতা

মূল্য বৃদ্ধিতে পশ্চিমবঙ্গ সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে, চলুন দেখে নেই কি কি জিনিসের দাম বেড়েছে

 মিনিকেট চাল ₹৪৫-৭০ কেজি, রত্না চাল₹৩০-৩৫ কেজি, বাঁশকাঠি ₹৭০-৭৫ কেজি , জ্যোতি আলু ₹২৮-৩০ কেজি, চন্দ্রমুখি আলু ₹৪০ কেজি, পোস্ত- ২০০০ কেজি,গ্যাস ₹১০২৪, এছাড়াও দাম বেড়েছে ওষুধ, রান্নার  ভোজ্যতেল এর,  আরো অনেক বস্তুর দাম বেড়েছে।

হঠাৎ করে জানা যাচ্ছে, মুদ্রাস্ফীতি কমানোর জন্য প্রধান মন্ত্রী পেট্রোল এর দাম 9.50 টাকা কমিয়েছে। 

নতুন খবর এবং টেকনিকাল খেলাধুলা জ্ঞান মূলক তথ্য জানতে হলে আমাদের নোটিফিকেশন বেলটি Allow করতে ভুলবেন না এবং আমাদের সাথে জুড়ে থাকবেন।

Related Articles

Back to top button