আজকালখবর

পার্থ চ্যাটার্জী এর সাথে জড়িত অর্পিতা, মোনালিসা এর পর আসলো মৌমিতা

পার্থ চ্যাটার্জি কেলেঙ্কারিতে প্রথমে ছিল অর্পিতা তারপরে নাম শোনা গেল মোনালিসা কিন্তু এবার নতুন এক নাম শুনে যাচ্ছে মৌমিতা অধিকারী। যতদূর জানা গেছে তিনি হলেন আলিপুরদুয়ারের শিক্ষক নেত্রী তথা পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির রাজ্য সম্পাদক।

Moumita Adhikari with Partha Chatterjee

পার্থ চ্যাটার্জি কেলেঙ্কারিতে প্রথমে ছিল অর্পিতা তারপরে নাম শোনা গেল মোনালিসা কিন্তু এবার নতুন এক নাম শুনে যাচ্ছে মৌমিতা অধিকারী। যতদূর জানা গেছে তিনি হলেন আলিপুরদুয়ারের শিক্ষক নেত্রী তথা পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির রাজ্য সম্পাদক। আপনারা সকলেই জানেন পার্থ চ্যাটার্জি নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে কতটা হইচই চলছে এবং ছাত্র ছাত্রী সবার ভিতরে প্রচুর পরিমাণ খুব দেখা যাচ্ছে চারিপাশে আলাদা আলাদা পোস্টার তৈরি হচ্ছে এবং বলা হচ্ছে এদেরকে জেলে ভরতে এবং সঠিক বিচার করতে। রাজ্যে চলছে ভয়াবহ দুর্নীতি হচ্ছে না চাকরি অর্থনীতির ডুবছে।  তারমধ্যে এত টাকা হদিশ পাওয়া গেলে মানুষজনের ভিতর ক্ষোভটা আরো উথলে উঠছে।  প্রথমে অর্পিতা মুখার্জির বাড়ি থেকে দেখা গেছিল 22 কোটি টাকা ও কুড়িটি ফোন ও সম্পত্তির কাগজপত্র কিন্তু সব মিলিয়ে আলাদা আলাদা জায়গা সম্পত্তি মোট করলে দেখা যাচ্ছে সেটি 130 কোটির বেশি টাকার সম্পত্তি।  কিন্তু কোথা থেকে টাকা চাকরি দেওয়ার নাম করে হয়েছে দুর্নীতি টাকা নেওয়া হয়েছে কত গরিব মানুষদের থেকে সেইসব টাকা হয়তো এখানে এসে জমা হয়েছে। 

পার্থ চ্যাটার্জির সাথে অর্পিতা এবং মোনালিসার যে ছবি দেখা যাচ্ছিল এরপরে নতুন ছবি পাওয়া যায় মৌমিতা অধিকারী সাথে যেটি নেটদুনিয়ায় তুমুল হারে ছড়িয়ে যাচ্ছে  মানুষের মধ্যে। বিরোধী সমাজ অভিযোগ করছে এই  মৌমিতা অধিকারীর  সাথে পার্থ চ্যাটার্জির ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। এই  ক্ষোভে বাম ছাত্র যুবকরা নতুন এক ছবি দিয়ে পোস্টার বানিয়েছে এবং সেখানে লিখেছে চোর  ধরো জল ভরো। আলিপুরের আরো তিনজনের নাম এর সাথে জড়িয়ে আছে এবং তাদেরকে একুশে জুলাই তৃণমূল জনসমাগম দেখা  গিয়েছে। 

 কিন্তু এখানে মৌমিতা অধিকারীর বক্তব্য রয়েছে অন্য বলছে আমাকে এর মধ্যে মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসানো হচ্ছে।  প্রথমে ভেবেছিলাম ধীরে ধীরে সব ঠিক হয়ে যাবে কিন্তু তা হয়নি উল্টো আরো বাড়তে থাকে ফলে আমাকে এফআইআর করতে হয়েছে। মৌমিতা অধিকারী বলছেন আমি শিক্ষক সংগঠন করি তাই আমাকে বিভিন্ন কারণে কলকাতায় যেতে হয় অতএব শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জির সাথে আমার ঘনিষ্ঠতা  স্বাভাবিক। 

মৌমিতা অধিকারী পোস্টার নিয়ে এস এফ আই এর  ( SFI ) পাভেল চৌধুরী বলেছেন “ শুধুমাত্র পার্থ চ্যাটার্জি নয় পশ্চিমবঙ্গের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে আছে এই দুর্নীতি নিয়ে আরো অনেক মানুষ যাদের সবাইকে ধরতে হবে,  তাদেরকে অবিলম্বে জেলে ভরতে হবে।  আমরা চাই এর সবকিছুর মাথা মুখ্যমন্ত্রী তাকেও যেন ধরা হোক এবং কালীঘাটে কত টাকা গিয়েছে তার বিচার করা হোক”

@newswap01

এই ধরনের আরো বিভিন্ন অজানা তথ্য এবং সতর্ক বার্তা সবার আগে পাওয়ার জন্য অবশ্যই আমাদের নিউজওয়াপ সাইটটিকে ফলো করবেন এবং নোটিফিকেশনটি অবশ্যই Allow করে দেবেন।

Related Articles

Back to top button