টেক

Redmi K50i | 23000 টাকার নিচে বেস্ট ফোন Redmi K50i

২৫০০০ টাকার নিচে বেস্ট ফোন Redmi K50i. Redmi K50i ফোনের ডিসপ্লে ৬”৬ , ১৪৪ হার্জ এর LCD. Redmi K50i ফোনে প্রসেসর Mediatek Dimensity 8100. UFS 3.1 Storage type & RAM type DDR5. এই ফোনে রয়েছে 64MP (1.89f) +8+2 rear cam, 16MP front (2.45f).

Redmi K50i

কিছুদিন আগে আমাদের ফোনের মার্কেট খুবই সমস্যার মধ্যে ছিল ফোন যে  স্পেসিফিকেশনে বাজারে আসছিল সেটি নরমাল কিন্তু তার দাম অনেকটাই বেশি কিন্তু এই বছরের মধ্যে সময় থেকে আবার ফোনের দাম কমার সময় শুরু হচ্ছে এখনো অনেক কম দামে অনেক উন্নত ফোন বাজারে আসবে।  রেডমি সবসময় চেষ্টা করে কম দামে মানুষের কাছে বেশি কিছু দেওয়ার ঠিক সেই কারণেই ভারতের মতো মার্কেটে দাম কে প্রাধান্য রেখে নিয়ে এসেছে এই নতুন মডেল টি।  এই ফোনের মডেলটি যারা ভিডিও গেম প্লেয়ার যেমন Free fire, BGMI তাদেরকে লক্ষ্য রেখে বানানো হয়েছে কারণ এর প্রসেসর এর ক্ষমতা অতুলনীয় এবং দাম টাও সস্তা। 

Redmi K50i এর বাক্সে কি কি থাকছে?

Redmi K50i ফোনের বাক্সে থাকছে আরও বাকি ফোনের মতই, মোবাইল কেস,  চার্জার, ডকুমেন্টেশন, সিম বার করার টুল। বক্সের সাথেই থাকছে ৬৭ ওয়াট  এর চার্জার।

Redmi K50i Design:

ফোনের  ব্যাটারি একটু বেশি হওয়ায় ফোনের ওয়েট একটু বেশি থাকছে (২০১ গ্রাম)। ফোনের রং তিন রকম কালার এর সাথে আসছে সিলভার, ব্ল্যাক এবং  ব্লু। ফোন আপনি ডান দিক বাম দিক ঘোরালে বোঝা যাবে ফোনের পিছনের ব্যাক টি মাঝে মাঝে অন্য রকম কালার ধারণ করে। ফোনের গ্রিপ যথেষ্ট ভালো কারণ ফোনের চারটি দিক ফ্ল্যাট।  ফোনের সব রকম সেন্সর দেখা যাচ্ছে সাথে আরেকটি বেশি থাকে যেটি সব রেডমি ফোনেই দেখা যায় আইআর ব্লাস্টার। অ্যামোলেড ডিসপ্লে না হওয়ার কারণে ফিঙ্গারপ্রিন্ট থাকছে সুইচএ। ফোন রয়েছে 3.5 headphone jack. বর্তমান সময়ের ফোনে হেডফোন জ্যাক খুবই কম দেখা যায় কিন্তু এইখানে রয়েছে এর প্রধান কারণ এই ফোনটি গেমিং কে টার্গেট করে বানানো হয়। 

Redmi K50i Display:

Redmi K50i ফোনের ডিসপ্লে ৬”৬ , ১৪৪ হার্জ এর LCD. Redmi K50i ফোনের ডিসপ্লে ডিভিশন কে সাপোর্ট করে। ডিসপ্লের টাচ  সাম্পেলিং রেট 270hz. ব্রাইটনেস থাকছে 650 নিট।  

@newswap01

Redmi K50i Battery:

Redmi K50i প্রধানত গেমারদের টার্গেট করে বানানো হয় সেই কারণে গেম খেলার জন্য একটু হলেও বেশি ব্যাটারির প্রয়োজন হয় কেউ চাইবে না সব সময় চার্জারের টেনসনে থাকতে।  এই ফোনের ব্যাটারি থাকছে ৫০৮০ mah সাথে থাকছে 67 ওয়াট এর ফাস্ট চার্জার। Redmi K50i ফোনের ব্যাটারি সারাদিন চলবে কারণ এই ফোনের প্রসেসর খুবি ব্যাটারি সেভিং। 67 ওয়াটের চার্জারের সাথে আপনি ফোন 45 থেকে 50 মিনিটের মধ্যে পুরোপুরি চার্জ করতে পারবেন।  এবং আপনি নিশ্চিন্তে পুরো দিন ব্যবহার করতে পারবেন যতই আপনি ফোনকে প্রেসার দিন। 

Redmi K50i Processor:

Redmi K50i ফোনে প্রসেসর Mediatek Dimensity 8100. যার অন্তত স্কোর রয়েছে আট লাখেরও বেশি।  এডিটিং থেকে শুরু করে গেম এই ফোন খুব দ্রুত কাজ করতে পারবে এর সাথে ফোনটিকে আরো সুপারফাস্ট ওষুধ বানানোর জন্য স্ট্যাম্প টাইপ খুবই উন্নত সেগুলি হলঃ UFS 3.1 Storage type & RAM type DDR5. ফোনের ডিসপ্লে 144 হার্জ হওয়ার কারণে প্রসেসর, storage type,  ডিসপ্লে একই সাথে কাজ করে এবং পারফরম্যান্স দেয় দুর্দান্ত। 

পারফরম্যান্স কে টার্গেট করে বানানোর জন্য খুব ভারি গেম গুলোতেও দারুণ পারফর্মেন্স দেখা যাচ্ছে এই ফোনটিতে। BGMI তে 60fps দেখা যায় সাধারনত, কিন্তু এই ফোন রয়েছে 90fps. Apex Legend game  এ রয়েছে perfect 60 fps. 

Redmi K50i Multimedia:

LCD Display হলেও আপনি অতটা বুঝতে পারবেন না কারণ চারিপাশ থেকে দেখলেও এর কালার গুলি খুবই সুন্দর হবে দেখায়।  এই ফোনে স্টেরিও স্পিকার রয়েছে কিন্তু কমতি আছে যে নিচের ছবিটিতে 70% সাউন্ড এবং অপরটিতে বাকি 30% তাতে সাউন্ড একটু হলেও ক্ষান্তি দেখা যায়। ।

Redmi K50i 5G ফোন হলেও এর ভিতর ব্যান্ড দেখা যাচ্ছে 12 টি ফলে 5G  কানেক্টিভিটি খুব ভালো চলবে। সাথে রয়েছে Dual 4G. Bt 5.3, Wifi 6 & IR Bluster. প্রায় সব কিছুই রয়েছে শুধুমাত্র স্ক্রিনের উপর ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর নেই তার বদলে পাওয়ার অন অফ বাটনে রয়েছে। Liquid Cool Vapour 2.0 রয়েছে। ফলে দীর্ঘ সময় ধরে গেম খেলার ফলেও ফোন তুলনামূলকভাবে ঠান্ডা দেখা যাবে। 

Redmi K50i OS:

Redmi K50i ফোনে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ১২, তার ওপরে পেশ করা রয়েছে MIUI 13, রয়েছে ৩ বছর এর security updates. 3GB এক্সট্রা RAM রয়েছে। 

Redmi K50i Camera: 

যে ফোনগুলি পারফরম্যান্স কে টার্গেট করে বানানো হয় সেই ফোনগুলোতে ক্যামেরা অতটা ভালো হয় না যতটা ব্যালেন্স এবং ফ্লাগশিপ ফোনে দেখা যায়। এই ফোনে রয়েছে 64MP (1.89f) +8+2 rear cam, 16MP front (2.45f). 

Video: Highest setting for rear : 4k 30fps , front: 1080p 60fps. এই ফোনে আরেকটি প্রসেসর রয়েছে যার ফলে ক্যামেরার পারফরম্যান্স একটু বাড়বে আশা করা যায়। Mediatek Imagiq 780 Processor for Camera Perfomance. 

এই ফোনের যত রকম রিভিউ আমরা রিচার্জ করেছি তারমধ্যে 6+128 GB verient এর দাম হতে পারে 25000 টাকার নিচে,  অফারে এটি দেখা যেতে পারে 20 থেকে 23000 টাকার মধ্যে। এই দামে ফোন যা যা অফার করছে সত্যি অতুলনীয়।  আমাদের সাজেশনে একটি কথাই বলবো এই ফোনটি কিনে আপনি  ভবিষ্যতে কখনো নিরাশ হবেন না। 

এই ধরনের আরো বিভিন্ন অজানা তথ্য এবং সতর্ক বার্তা সবার আগে পাওয়ার জন্য অবশ্যই আমাদের নিউজওয়াপ সাইটটিকে ফলো করবেন এবং নোটিফিকেশনটি অবশ্যই Allow করে দেবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button