একটানা কত সময় ধরে ফোন চালালে শরীরে রোগের বাসা বাঁধে জানেন?

Side effects of using mobile phone for long time
Side effects of using mobile phone for long time

বর্তমান সময় আমরা ফোন ছাড়া অচল। ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেট ইন্টারনেট ছাড়া আমাদের কোন কাজ হয় না। কাছ ছাড়া আমরা সময় কাটাই এখন বেশিরভাগ ইন্টারনেটের মধ্যেই। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ভিডিও ইউটিউব আর ইত্যাদি। তবে এই ব্যস্ততার সময় ফোন কে ছেড়ে চলা তো সম্ভব নয় তবে গবেষকদের মতে একটানা ফোন চালালে বিভিন্ন রোগের শিকার হতে পারে মানব দেহ।

বর্তমানে এই রোগগুলির সব থেকে বেশি পরিমাণ শিকার হচ্ছে মুম্বাইয়ের মানুষজন। এর পিছনে কারণ মুম্বাইয়ের দ্রুততম মানুষ। ভারতের সবথেকে ধনী রাজ্য যেখানে মানুষ গিরগতির কাজ পছন্দ করেনা। গবেষকদের মতে যারা প্রতিদিন একটানা ৩০ মিনিটের বেশি মোবাইল চালায় তাদের উচ্চ রক্তচাপ অর্থাৎ হাই ব্লাড প্রেসারের সমস্যা দেখা দেবে। এছাড়া মোবাইল থেকে নির্গত রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি হাই ব্লাড প্রেসার এর অন্যতম একটি কারণ।

হাই ব্লাড প্রেসারের সাথে দ্বিতীয় সব থেকে বড় সমস্যা চোখের দৃষ্টিশক্তি। চোখ আমাদের মানবদেহের সবথেকে সেনসিটিভ একটি অংশ। আমাদের সঠিকভাবে চলতে চোখের গুরুত্ব অপরিসীম। দীর্ঘদিন অতিরিক্ত পরিমাণ মোবাইল ঘাঁটার কারণেই ছোট থেকে বড় সবার চোখেই প্রায় চশমা। অনেকে চোখে লেন্স লাগাতে হয়। রাত রাত পর্যন্ত মোবাইল চালানোর পর চোখের নিচে কালি পরা। আরো বিভিন্ন ধরনের সমস্যা।

হাতের কব্জিতে ও শরীরের বিভিন্ন হারে ব্যথার সৃষ্টি হওয়ার কারণ এই মোবাইল। একটানা আমরা হাতের মাধ্যমে মোবাইলকে ধরে রেখে ব্যবহার করি সেই কারণে হাতের কবচিতে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হতে পারে। বর্তমান সময় মানুষ আরাম করে শুয়ে বসে মোবাইল চালাতে বেশি পছন্দ করে সেই কারণে অল্প বয়সেই মানুষের হাড়ে সমস্যা দেখা যায়।

আরও পরুনঃ এই মাসের বেতন কম আসবে, সঠিক অপশন না বেছে নিলেই বিপদ

আরও পরুনঃ ৫ বছরের মধ্যে পিএফ একাউন্ট থেকে টাকা তুলছেন, কত ট্যাক্স কাটে জানেন?

ঘুমের ঘাটতি সবথেকে প্রধান কারণ মোবাইল ল্যাপটপ ও বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স গেজেট। মানুষের বর্তমান যুগে চলতে এত পরিমাণ কাজের প্রেসার দেখা যায়, তারা সারাদিন মোবাইল এবং ল্যাপটপের দিকে তাকিয়ে থাকে ফলে তাদের ব্লাড প্রেসারের সাথে স্ট্রেস এর পরিমাণ বাড়তে থাকে। খুবই রাত পর্যন্ত ফোন চালালে ঘুম কম হয় এতে মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায়। শরীরে হজমের সমস্যা হয় এর ফলে কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দেয়। চেষ্টা করবেন একটানা ১০ থেকে ১৫ মিনিটের বেশি ফোন না চালানোর তবে বর্তমান যুগে মানুষের চলতে গেলে কাজ করতেই হবে টেকনোলজিকে সাথে নিয়ে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। তবে চেষ্টা করবেন রাতে অতিরিক্ত পরিমাণ ফোন অথবা ল্যাপটপ ও ইলেকট্রনিক্স গেজেট না চালান। ঘুমানোর এক ঘন্টার আগে ফোন ওই ইলেকট্রনিক্স গেজেটকে দূরে সরিয়ে রাখুন এতে আপনার স্বাস্থ্য ভালো থাকবে।

এই ধরনের আরো বিভিন্ন অজানা তথ্য এবং সতর্ক বার্তা সবার আগে পাওয়ার জন্য অবশ্যই আমাদের নিউজওয়াপ সাইটটিকে ফলো করবেন এবং নোটিফিকেশনটি অবশ্যই Allow করে দেবেন।

Telegram Channel 🤩🤩এখানে ক্লিক করুন
Facebook Pageএখানে ক্লিক করুন
Twitterএখানে ক্লিক করুন
Kooএখানে ক্লিক করুন
WhatsApp ✔✔🤳🤳এখানে ক্লিক করুন
Google Newsএখানে ক্লিক করুন